সতর্কতামূলক পোস্টঃ মন্ত্রণালয়ের বা সরকারের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে টেলিফোন বা মোবাইলে মানবিক কারণ / ভয়ভীতি প্রদর্শন করে একটি কুচক্রী মহল টাকাপয়সা আদায়ের অপচেষ্টায় লিপ্ত- এ ধরণের অভিযোগ আমরা পাচ্ছি। সকলকে সতর্ক থাকার আহবান জানাই। এ ধরণের ফোন পেলে বিচলিত না হয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে যাচাই করার অনুরোধ করা হচ্ছে। কুচক্রীদের কোনো ফাঁদে পা দেবেন না। সবাইকে ধন্যবাদ। ভালো থাকুন।

মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ নভেম্বর ২০২১

বড়পুকুরিয়া-বগুড়া ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন নির্মাণে চুক্তি


প্রকাশন তারিখ : 2021-11-25

বড়পুকুরিয়া থেকে বগুড়া পর্যন্ত ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করছে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিঃ (পিজিসিবি)। আগামী ৩০ মাসের মধ্যে ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই লাইনটি নির্মাণ কাজ শেষ হবে। এ কাজের জন্য ভারতীয় প্রতিষ্ঠান টাটা প্রজেক্টস লিঃ -কে টার্নকী ঠিকাদার নিয়োগ করেছে পিজিসিবি। গত ২৫ নভেম্বর ২০২১খ্রিঃ পিজিসিবি’র প্রধান কার্যালয়ে এজন্য দু’পক্ষের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে।

লাইনটির নির্মাণকাজ শেষ হলে উত্তরবঙ্গে আরও শক্তিশালী হাইভোল্টেজ নেটওয়ার্ক গড়ে উঠবে। লো-ভোল্টেজ সমস্যা দূর হবে এবং লাইনটি ওই অঞ্চলে ৪০০ কেভি ব্যাকবোন লাইন হিসেবে কাজ করবে।

এ কাজে ব্যয় হবে ১,০০৬ কোটি টাকা (প্রায়)। ভারতীয় এক্সিম ব্যাংক, বাংলাদেশ সরকার এবং পিজিসিবি সম্মিলিতভাবে এ কাজে অর্থায়ন করছে। পিজিসিবি’র গৃহীত বড়পুকুরিয়া-বগুড়া-কালিয়াকৈর ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় কাজটি করা হচ্ছে।

চুক্তিপত্রে পিজিসিবি’র পক্ষে কোম্পানি সচিব (অতিঃ দাঃ) মোঃ জাহাঙ্গীর আজাদ স্বাক্ষর করেন। টাটা’র পক্ষে যৌথভাবে স্বাক্ষর করেন ডেপুটি স্ট্র্যাটেজিক বিজনেস ইউনিট হেড দেশরাজ পাঠক ও শুধাংশু গার্ঘ।

পিজিসিবি’র প্রধান প্রকৌশলী (পিএন্ডডি) আবদুল মোনায়েম চৌধুরী, মহাব্যবস্থাপক (অর্থ) (অতিঃ দাঃ) মোঃ বেলায়েত হোসেন, প্রকল্প পরিচালক শেখ জাকিরুজ্জামান এবং টাটা প্রজেক্টস’র এজিএম সুমো চ্যাটার্জি ও অখিলেষ কুমার সিং সহ উভয়পক্ষে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ চুক্তি স্বাক্ষরপর্বে উপস্থিত ছিলেন।


Share with :

Facebook Facebook